রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪

ইসলামফোবিয়ার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হলো ৫৭টি মুসলিম দেশ

বিশ্বের ৫৭টি ইসলামিক দেশ নিয়ে গঠিত অর্গানাইজেশন অব ইসলামিক কো-অপারেশন (ওআইসি) তুরস্কে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে ভুল তথ্য ও ইসলামফোবিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ঘোষণাপত্র গ্রহণ করেছে। ওআইসি বিশ্বের সবগুলো সংবাদ মাধ্যমকে ইসলামফোবিয়ার বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণেরও আহ্বান জানায়।
ওআইসির বিবৃতি অনুযায়ী, তথ্য সংক্রান্ত ওআইসির মন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনের দ্বাদশ অধিবেশনে ইস্তাম্বুল থেকে এ ঘোষণা দেয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

গত শনিবার তুরস্কের ইস্তাম্বুলে এ বৈঠক শুরু হয়।

এই ঘোষণার উদ্দেশ্য হল ডিজিটাল যুগে পদ্ধতিগত বিভ্রান্তির বিরুদ্ধে লড়াই করা। কারণ সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মগুলির কারণে তথ্য ভাগাভাগি আরও গণতান্ত্রিক হয়ে উঠেছে। সন্ত্রাসবাদের নামে ইসলামের বিরুদ্ধাচারণ ও নিন্দার একটা জোয়ার তৈরি করতে চাচ্ছে।
সত্য-পরবর্তী যুগে মিথ্যা তথ্য এবং ইসলামোফোবিয়ার মোকাবিলা শীর্ষক এই দুই দিনব্যাপী সম্মেলনে ৫৭টি দেশের তথ্যমন্ত্রী ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা অংশ নিয়েছেন।

সৌদি আরব অনুষ্ঠান শুরুর দিনে উদ্বোধনী অধিবেশনে সম্মেলনের সভাপতিত্ব তুরস্কের কাছে হস্তান্তর করে। সৌদি আরবের ভারপ্রাপ্ত মিডিয়া মন্ত্রী ড. মাজিদ বিন আবদুল্লাহ আল-কাসাবি তার ভাষণে ওআইসি সদস্য দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতার আহ্বান জানান। বিশ্বের মুখোমুখি চ্যালেঞ্জ গ্রহণের মাধ্যমে ইসলামফোবিয়া রুখে দিতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ারও আহ্বান জানান।

এদিকে ওআইসি মহাসচিব হুসেইন ইব্রাহিম ত্বহা বলেন, এই বৈঠকের উদ্দেশ্য ছিল মিডিয়া সেক্টরের বিশেষ করে সংগঠনের সদস্য দেশগুলো যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে সেগুলো নিয়ে আলোচনা করা। একই সঙ্গে ধর্মীয় ইস্যুতে মিডিয়া ডিসকোর্স পর্যালোচনা করা হয়।

তিনি বলেন, ভুল তথ্য ও ইসলামোফোবিয়া বর্তমানে সত্য মিথ্যা ও স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক জনমতকে বিভ্রান্ত করার অন্যতম গুরুতর উপায়। তারা ইসলামের সত্য ও মহান মূল্যবোধকে বিকৃত করার চেষ্টা করে।

ত্বহা মিডিয়াকে এই ঘটনাগুলোকে ক্রমাগত মোকাবেলা করার জন্য আহ্বান জানান। মিডিয়া সংস্থাগুলোকে এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার জন্য এবং OIC সদস্য দেশগুলোর খবরে ফোকাস করার জন্য সচেতনতা তৈরির আহ্বান জানান।



Comments are Closed

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: