শনিবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২৩

থ্যাইল্যান্ডে চমক, গণতন্ত্রের জয়

থ্যাইল্যান্ডে চমক, গণতন্ত্রের জয়

গতকাল রোববার থ্যাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হয় সংসদ নির্বাচন। ভোট শেষে

ফলাফলে চমক দেখিয়েছে মুভ ফরওয়ার্ড পার্টি (এমএফপি)। যা অনেকে কল্পনা করতে পারেনি।

দীর্ঘ সময় ধরে এশিয়ার দেশ থাইল্যান্ড শাসন করছে সেনা সমর্থিত সরকার। তবে এবারের নির্বাচনে সে দেশের জনগণ সব বাধা অতিক্রম করে ভোট কেন্দ্রে গিয়েছে। আর ভোট দিয়েছে বিরোধী পক্ষকে।

যার ফলে সেনা-সমর্থিত সরকারকে হারিয়ে থাইল্যান্ডের সাধারণ নির্বাচনে বিপুল জয় পেয়েছে দেশটির বিরোধী দল মুভ ফরোয়ার্ড পার্টি। ৯৯ শতাংশ ভোট গণনা শেষে এই দলটি বড় ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে। অন্যদিকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে আরেক বিরোধী দল ফেউ থাই পার্টি।

তবে এই দুই দলের কোন দলটি সরকার গঠন করবে বা উভয় দল মিলে জোট সরকার গঠন করবে কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয়। সোমবার (১৫ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

তবে এই জয়ে নায়ক ৪২ বছর বয়সী সাবেক প্রযুক্তি নির্বাহী পিটা লিমজারোনরাত। আগে দেখা গিয়েছিল, ফলাফলে এগিয়ে ছিল ফিউ থাই দল; যার নেতৃত্বে আছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী থাকসিন সিনাওয়াত্রার মেয়ে ৩৬ বছরের পেতংতার্ন সিনাওয়াত্রা। এই জয়ে ভোটার ও গণতন্ত্রের জয় হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন সে দেশের রাজনৈতিক নেতারা। খবর বিবিসির

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ধারণা করা হচ্ছে নির্বাচনে অংশ নেওয়া বিরোধী দল দুটি জোট আলোচনার জন্য প্রস্তুত। থাই ভোটাররা সামরিক সমর্থিত সরকারকে প্রত্যাখ্যান করেছে।

প্রাথমিক ফলাফলে দেখা যাচ্ছে, গণনায় এখন পর্যন্ত এগিয়ে রয়েছে বিরোধী দল মুভ ফরোয়ার্ড পার্টি (এমএফপি)। এরপরই রয়েছে আরেক বিরোধী দল থাকসিন সিনাওয়াত্রার দল ফিউ থাই।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে সামরিক অভ্যুত্থানের অভিজ্ঞতা অর্জনের পর এই নির্বাচনকে থাইল্যান্ডের জন্য একটি টার্নিং পয়েন্ট হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে।



Comments are Closed

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: