রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪

মধু মাসের বাজারে পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ তালের শাঁস

মধু মাসের বাজারে পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ তালের শাঁস

বেনাপোল প্রতিনিধি : ইতোমধ্যে বিদায় নিয়েছে বৈশাখ। আজ ৩ জ্যৈষ্ঠ। জ্যৈষ্ঠকে বলা হয় মধু মাস। আম, জাম, লিচু, তরমুজ ও জাতীয় ফল কাঁঠালের পাশাপাশি এই মাসে পাওয়া যায় বাহারী সব রসালো ফল। মধু মাসের এ সময়টাতে গ্রীষ্মের খরতাপে তৃষ্ণা মেটাতে হাজির হয় নানান পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ তালের শাঁস। গ্রামের পাশাপাশি শহরেও জনপ্রিয় এই কচি তাল বা তালের শাঁস।

ফল হিসেবে তাল বহুল পরিচিত ফলের একটি। কচি তালের শাঁস যেমন সুস্বাদু ও পুষ্টিকর তেমনি পাঁকা তাল ও তালের পিঠা গ্রাম বাংলার সুস্বাদু ও জনপ্রিয় খাবার।

যশোরের শার্শা, বেনাপোল, বাগআঁচড়া ও নাভারণ বাজার সহ বিভিন্ন ছোট বড় বাজারের অলিগলি কিংবা প্রধান প্রধান সড়কের আশেপাশে মৌসুমি ব্যবসায়ীদের তালের শাঁস বিক্রি করতে দেখা যাচ্ছে ।

বিক্রেতারা জানান, প্রতিদিন কমপক্ষে ৩ থেকে ৪শ’ তাল বিক্রি করেন একেকজন ব্যবসায়ী। প্রতিটি তালের শাঁসের দাম ৫টাকা হিসাবে একটি আস্ত তাল ১৫ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। অন্য ফল বিক্রির চেয়ে তালের শাঁসে লাভ বেশি হওয়ায় প্রতি বছর মৌসুমি ব্যবসায়ীরা পুরোদমে তালের শাঁস বিক্রি করে থাকে।

তবে দাম যাই হোক না কেন, স্বাদে অতুলনীয়, জলে ভরপুর এই তালের শাঁস প্রচণ্ড গরমে শরীরকে শান্ত করে দেয় বলেই জনপ্রিয় এই শাঁস খেতে রীতি মতো লাইন পড়ে যায়।

চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের মতে, ১০০ গ্রামের একটি তালের শাঁসের ৯২ দশমিক ৩ শতাংশই জলীয় অংশ। ক্যালোরি থাকে ২৯ শতাংশ, শর্করা ৬ দশমিক ৫ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ৪৩ মিলিগ্রাম, খনিজ থাকে ০ দশমিক ৫ মিলিগ্রাম, ভিটামিন সি থাকে ৪ মিলিগ্রাম।

এ প্রসঙ্গে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. ইউসুফ আলী জানান, তীব্র গরমে শরীর ও পেট ঠাণ্ডা রাখে তালের শাঁস। তালের শাঁসে রয়েছে আয়োডিন, মিনারেলস,পটাশিয়াম, জিঙ্ক ও ফসফরাস। বিভিন্ন ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে তালের শাঁস নানা রোগের প্রতিশেধক হিসেবে কাজ করে।



Comments are Closed

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: