শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪

চুয়াডাঙ্গার জয়রামপুর স্টেশন বাজারে ৫৫ কেজি ৫০০ গ্রামের কাঁঠাল নিয়ে চলছে চাঞ্চল্য কর আলোচনা

চুয়াডাঙ্গার জয়রামপুর স্টেশন বাজারে ৫৫ কেজি ৫০০ গ্রামের কাঁঠাল নিয়ে চলছে চাঞ্চল্য কর আলোচনা

চুয়াডাঙ্গার জয়রামপুর স্টেশন বাজারে ৫৫ কেজি ৫০০ গ্রামের কাঁঠাল নিয়ে চলছে চাঞ্চল্য কর আলোচনা

ইমরান হোসেন: পাকিস্তান শাসন আমল থেকে চুয়াডাঙ্গার   জয়রামপুর কে বলা হয় কাঁঠালের স্বর্গরাজ্য। কাঁঠালের গ্রাম বলেই যার পরিচিত ছিল একসময়। এখান থেকে প্রতি বছর গড়ে কয়েক হাজার কাঠাল এখান থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ট্রেন যোগে চলে যেত ।

এই বাজারে প্রতিদিন ভোর পাঁচটা থেকে ৭ টা পর্যন্ত চলত কাঠাল বেচাকেনা।
কালের বিবর্তনে তা হারাতে বসেছে। বিভিন্ন বিদেশী লাভজনক ফলের চাষ করতে এই জাতীয় ফল কাঁঠাল বাগান বিলুপ্তির পথে।

কাঁঠাল বিলুপ্তের পথে গেলেও এখনো কাঁঠালের সুনাম যেন ধরে রেখেছে জয়রামপুর গ্রামের কৃষকেরা। গতকাল শুক্রবার সকাল ১১ টার দিকে জয়রামপুর স্টেশনে একটা ট্রাকে কাঁঠাল লোড করা হয়। এ সময় কয়েকটি দানব আকৃতির কাঁঠাল দেখা গেলে সেগুলোকে ডিজিটাল স্কেলে ওজন দেওয়া হয়। পর্যায়ক্রমে চারটি কাঠাল ওজন দিলে একটি কাঁঠালের ওজন হয় ৫৫ কেজি ৫৪০ গ্রাম, ৪১ কেজি ৭০০ গ্রাম, ৩৯ কেজি ও ৩৮ কেজি ৯০০ গ্রাম।

এই বিষয়ে কাঁঠাল ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জয়রামপুরে কাঁঠালের একটা সুনাম আছে এবং কাঁঠালের শহর নামে অনেক এলাকায় এর পরিচিতি আছে। আমি এর আগেও অনেক বড় বড় কাঁঠাল কিনেছি কিন্তু এটাই সর্বপ্রথম যা ৫৫ কেজি ওজনের বেশি হয়েছে।

এই কাঁঠালের ওজন নিয়ে এবং আকৃতি নিয়ে চলছে সাধারণ মানুষ এর মাঝে চাঞ্চল্যকর আলোচনা। একটি কাঠাল উঠাইতে লাগে দুই থেকে তিনজনের হাত। যা এর আগে দেখা যায়নি। এর আগেও বড় কাঁঠাল দেখা গেলেও ৪০ থেকে ৪২ কেজি ওজন পাওয়া গেছে।



Comments are Closed

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: