সোমবার, জুলাই ২২, ২০২৪

জয়রামপুর মুসলিম মেয়ে প্রেমিকা কামনা কে না পেয়ে হিন্দু প্রেমিক শুভর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

জয়রামপুরে মুসলিম মেয়ে প্রেমিকা কামনা কে না পেয়ে হিন্দু প্রেমিক শুভর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

জয়রামপুরে মুসলিম মেয়ে প্রেমিকা কামনা কে না পেয়ে হিন্দু প্রেমিক শুভর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

 

ইমরান হোসেন:দামুড়হুদার জয়রামপুর কাঁঠালতলা দাস পাড়ায় হিন্দু সম্প্রদায়ের এক যুবক ও একয় এলাকার মুসলিম পরিবারের এক মেয়ের সাথে দীর্ঘ দিনের প্রেমজ সম্পর্ক, অবশেষে হিন্দু সম্প্রদায়ের সেই যুবক প্রেমিকাকে বিয়ে করতে না পেরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

এলাকা সুত্রে জানাগেছে দামুড়হুদা উপজেলার হাউলী ইউনিয়নের জয়রামপুর কাঁঠালতলা দাস পাড়ার শ্রী রতন দাসের ছেলে শ্রী শুভ দাস (২০) ও জয়রামপুর কাঁঠালতলা বাসস্ট্যান্ড পাড়ার ভ্যান চালক কাছেদের মেয়ে কামনা (২১) এদের মধ্যে বেশ কয়েক বছর ধরে চলে আসছে প্রেমের সম্পর্ক ।এক পর্যায়ে তাদের দুজনের কিছু অন্তরঙ্গ ছবি এলাকায় ভাইরাল হয়ে যায়। এবিষয় নিয়ে এলাকার মন্ডল মাতবরদের বিচারে ঐ মুসলিম পরিবারটিকে ডাকা হলে কেউ হাজির হয়নি, তখন এক পর্যায়ে মাতব্বরা ঐ পরিবারটিকে এক ঘোরে করে রাখলে উল্টো সেই মন্ডল মাতব্বরদের নামে দামুড়হুদা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন ভ্যান চালক কাছেদ ও তার পরিবার। অবশেষে ঐ দুই পরিবার ও এলাকার মন্ডল মাতব্বরদের দামুড়হুদা মডেল থানায় ডেকে মিমাংসা করে দেওয়া হয়। জয়রামপুর কাঁঠাল তলার কাছেদের মেয়ের সাথে সর্ম্পক ছিল শুভ দাসের, ছেলে হিন্দু ধর্ম, মেয়ে মুসলিম বলে দামুড়হুদা মডেল থানার ওসি সাহেব বিচার করে দিয়ে ছিল উভয় পক্ষ কেউ কারো সাথে কোনো প্রকার যোগাযোগ রাখতে পারবে না। সে কারণে শুভ দাসের পিতা রতন দাস পাবনা চাটমোহর শুভ দাসের নানার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়, সেখানে শুভ দাসের নানার বাড়ির লোকজন শুভ দাসের জন্য বিয়ে ঠিক করে গত ১০/০৭/২৩ ইং সোমবার বিয়ের ডেট ছিল, বিয়ের খবর জানতে পেরে কাছেদ আলীর মেয়ে কামনা খাতুন পাবনা চাটমোহর চলে যায় গত শনিবার ০৮/০৭/২৩ ইং, সাখা সিঁদুর পরে ,শুভ দাসের নানা,নানী,ও মামা,দের কাছে বলে শুভোর সাথে আমার বিয়ে হয়ে গেছে। তার পর সেই বিয়ে ভেঙ্গে যায়, তখন শুভ দাসে’র সাথে দীর্ঘ ১৬ দিন থেকে ,গত ২৪/০৭/২৩ ইং সোমবার জয়রামপুরে নিজ বাড়িতে ফিরে আসে এসে তার বাবা মাকে বলে কামনা আমার বিয়ে ভেঙ্গে দিয়েছে এখন আমি কামনার সাথে বিয়ে করিবো, তখন শুভ দাসের বাবা মা বলে ওসি সাহেবের নিষেধ আছে তুই ঐ মেয়ের সাথে কথা বলতে পারবি না, সে কারণে বাবা মায়ের উপর রাগ করে গলাই দড়ি দিয়েছে বলে অভিযোগ করছে নিহত শুভ দাসের পরিবারের সদস্যরা।
এদিকে কামনার বাবা বিভিন্ন মহলে দোড় ঝাঁপ শুরু করে দিয়েছে।
এবিষয়ে দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ,,,, কাছে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,,,, এটি একটি অপমৃত্যু, এজন্য মৃত শুভকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে ময়নাতদন্ত করার জন্য পাঠানো হয়েছে। কেন এই অপমৃত্যু হল এখনো এর কোনো সঠিক কারণ খুঁজে পাওয়া যায় নায়।



Comments are Closed

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: