শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪

যশোরে অনিয়ম,অনুমোদনহীন হাসপাতাল-ক্লিনিক শীলগালা

মোঃ সাহিদুল ইসলাম শাহীনঃ-যশোর জেলা সদরে চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম, অনুমোদনবিহীন হসপিটাল পরিচালনা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে অপারেশন পরিচালনার জন্য ০৪ টি প্রতিষ্ঠানকে অর্থদন্ড ও ০১ টি প্রতিষ্ঠানকে শিলগালা সহ আরও ০১ টি প্রতিষ্ঠানের প্যাথলজি শিলগালা করে র‌্যাব, জেলা প্রশাসন ও সিভিল সার্জনের প্রতিনিধির সমন্বয়ে গঠিত যৌথ ভ্রাম্যমান আদালত।

 

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৬ সিপিসি-৩, বকচর, যশোর কোম্পানী কমান্ডার মেজর মোহাম্মাদ সাকিব হোসেন এক “প্রেস রিলিজ” এ জানিয়েছেন- ” র‌্যাব ফোর্সেস আমাদের প্রিয় মাতৃভূমির অপ্রতিরোধ্য উন্নয়ন অগ্রযাত্রাকে ত্বরান্বিত করতে এবং সন্মানিত নাগরিকদের জন্য টেকসই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে আইনের আলোকে কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছে। এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে সংঘটিত চাঞ্চল্যকর অপরাধে জড়িত অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে র‌্যাব জনগনের সুনাম অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে”।

 

“বর্তমানে চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন অনিয়ম, অনুমোদনবিহীন হসপিটাল ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে অপারেশন কার্যক্রম পরিচালনা পরিলক্ষিত হচ্ছে এবং সাধারণ জনগণ এসকল বেসরকারি ক্লিনিক ও হসপিটালে গিয়ে সঠিক সেবা না পাওয়া বিভিন্নভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। বর্তমান সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় বিভিন্ন অনিয়ম, অনুমোদনবিহীন হসপিটাল ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে অপারেশন কার্যক্রম পরিচালনার বিরুদ্ধে আইনশৃংখলা বাহিনী ইতিমধ্যে সিভিল প্রশাসনের সহায়তায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা শুরু করেছেন”।

 

“এরই ধারাবাহিকতায় যশোর জেলার কোতয়ালী মডেল থানাধীন দড়াটানা এলাকায় কয়েকটি বেসরকারি ক্লিনিক ও হসপিটালের চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা ও অপারেশনাল, প্যাথিলজিক্যাল পরিবেশ স্বাস্থ্যকর কিনা এবং সরকারি অনুমোদন আছে কিনা তা পরিক্ষা করার জন্য অদ্য ১৮ জানুয়ারি ২০২৪ তারিখ সময় ১০.৩০ ঘটিকা হতে ১৪.০০ ঘটিকা পর্যন্ত র‌্যাব-৬, সিপিসি-৩, যশোর এর স্কোয়াড কমান্ডার এএসপি মোঃ ফয়সাল তানভীর, মোঃ নাবিদ হোসেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, যশোর ও ডাঃ সৌরভ রায়, মেডিকেল অফিসার, যশোর এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ ভাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে। এ সময় যশোর পৌরসভাধীন দড়াটানা এলাকার পপুলার মেডিকেল সার্ভিসেস এর চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ পরিলক্ষিত হওয়ায় মেডিকেল প্রাকটিস এবং বেসরকারি ক্লিনিক ও ল্যাব (নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাদেশ ১৯৮২ এর ১৩ (২) ধারা মোতাবেক পপুলার মেডিকেল সার্ভিসেস এর মালিক মোঃ আরিফুর রহামান (৫০), পিতা- মোঃ হাসিবুর রহমান, সাং-ঘোপ, থানা- কোতয়ালী, জেলা- যশোরকে ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা করে এবং চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ এবং প্যাথলজিক্যাল টেস্টের মূল্যতালিকা না থাকায় উক্ত ধারায় ল্যাবজোন স্পেশালাইজড হসপিটাল এর মালিক সিকদার সালাউদ্দিন (৪৭), পিতা- সোহরাব উদ্দিন সিকদার, সাং- উপশহর, থানা- কোতয়ালী, জেলা- যশোরকে ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা করে। যশোর শহরের ঘোপ সেন্ট্রাল রোডের যশোর আধুনিক হাসপাতাল এর সরকারি অনুমোদন না থাকায় হাসপাতালটি শিলগালা করা হয় এবং চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ  পরিলক্ষিত হওয়ায় যশোর আধুনিক হাসপাতাল এর মালিক মোঃ মামুন (২৮), পিতা- আব্দুল আহাদ,সাং- কাশিমনড়র, থানা- মনিরামপুর,জেলা- যশোরকে ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা করে”।

 

“এছাড়াও যশোর জেলার পালবাড়ি নতুন খয়েরতলা এলাকার হাসিনা ক্লিনিক এ্যান্ড নাসিং হোম এর চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় অনিয়ম, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের কারণে উক্ত ক্লিনিকের মালিক ডাঃ মেজবা-উর-রহমান (৬৪), পিতা- আব্দুল মজিদ, সাং- পালবাড়ি, থানা- কোতয়ালী মডেল, জেলা- যশোরকে একই ধারা মোতাবেক ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা করে এবং হাসিনা ক্লিনিক এ্যান্ড নাসিং হোম এর প্যাথিলজি অস্বাস্থ্যকর, ল্যাবেল বিহীন কেমিক্যাল ব্যবহার এর অপরাধে উক্ত ক্লিনিকের প্যাথলজি শিলগালা করা হয়। যৌথ এই ভাম্যমাণ আদালত কর্তৃক চারটি প্রতিষ্ঠানকে মোট ২০,০০০/- (বিশ হাজার) টাকা অর্থদন্ড ও ০১ টি প্রতিষ্ঠানকে শিলগালা সহ আরও ০১ টি প্রতিষ্ঠানের প্যাথলজি শিলগালা করা হয়েছে এবং পরবর্তীতে চিকিৎসা ব্যবস্থাপনায় এ সকল অনিয়ম না করার জন্য সতর্ক করা হয়েছে”।

জরিমানার অর্থ সংশ্লিষ্ঠ ব্যক্তি তাৎক্ষণিক প্রদান করায় সরকারি কোষাগারে জমা করা হয়েছে বলে  র‍্যাব কমান্ডার জানিয়েছেন।

 



Comments are Closed

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: