বুধবার, জানুয়ারি ২৬, ২০২২

যে কারণে মোংলা বন্দরে নিলামে উঠছে ১৩২ গাড়ি

দীর্ঘদিন মোংলা বন্দরে পড়ে আছে আমদানি হওয়া দুই হাজার ৮৮৪টি রিকন্ডিশন গাড়ি। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ছাড় না হওয়ায় বিভিন্ন মডেলের এসব গাড়ির ১৩২টি নিলামে উঠছে। ১৮ জানুয়ারি এই নিলাম অনুষ্ঠিত হবে।

মোংলা কাস্টমস হাউসের নিলাম শাখার রাজস্ব কর্মকর্তা আবু বাসার সিদ্দিকী এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, নিলামে ওঠা ১৩২টির মধ্যে হাইয়েস, নোহা, প্রাডো, নিশান পেট্রলসহ ১৬ ব্র্যান্ডের গাড়ি রয়েছে। মোংলা বন্দরে আমদানি হওয়া এসব গাড়ি নির্দিষ্ট ৩০ দিনের মধ্যে ছাড় করাতে ব্যর্থ হয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তাই নিয়মানুযায়ী নিলামে উঠছে এসব গাড়ি। নিলামে অংশ নেওয়া সর্বোচ্চ দরদাতার তালিকা প্রকাশের পর বিক্রির আদেশ দেওয়া হবে।

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের সহকারী ট্রাফিক ম্যানেজার মো. কুদরত আলী শেখ বলেন, মোংলা বন্দরে ২০০৯ সালের ৩ জুন ২৫৫টি রিকন্ডিশন গাড়ির আমদানি শুরু হয়। হক-বে অটোমোবাইল কোম্পানি প্রথম এই বন্দরে গাড়ি আমদানি করে। এ পর্যন্ত এক লাখ ৪৬ হাজার ১৬৩টি গাড়ি আমদানি হয়েছে এই বন্দরে। এক লাখ ৪৩ হাজার ২৭৯টি গাড়ি বিক্রি ও নিলামের মধ্যে দিয়ে ডেলিভারি হয়। বর্তমানে বন্দর জেটির বিভিন্ন শেডে দুই হাজার ৮৮৪টি গাড়ি রক্ষিত রয়েছে।

বাংলাদেশ রিকন্ডিশন ভেহিক্যালস ইম্পোর্টার্স অ্যান্ড ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বারবিডা) সভাপতি আব্দুল হক বলেন, করোনার কারণে গত দুই বছর তাদের সদস্যদের চার হাজার বিক্রয়কেন্দ্র বন্ধ ছিল। এতে প্রায় এক হাজার কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েন তারা। এই অবস্থায় বন্দরে পড়ে থাকা গাড়িগুলোর নিলাম বন্ধের দাবি জানান তিনি।



Comments are Closed

%d bloggers like this: