বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৭, ২০২২

র‌্যাবের নির্যাতন: সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের প্রতিবাদ সমাবেশ

মামলা হয়নি, আসামীও নন, তা সত্ত্বেও কেন সাংবাদিক গোলাম সরোয়ারকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে গিয়ে টানা ৭ ঘন্টা মানসিক নির্যাতন চালিয়েছে র‌্যাব এমন প্রশ্ন রেখে সাতক্ষীরার সাংবাদিকরা এই ঘটনাকে মানবাধিকারের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করেছেন। তারা বলেছেন, কোন অপরাধ নয়, কেউ আসামী নয় অথচ একটি তুচ্ছ মারামারির ঘটনায় র‌্যাব কর্মকর্তারা কেন এত উৎসাহী হয়ে এই অঘটন ঘটালেন তা প্রশ্নবিদ্ধ। তারা এর নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সংশ্লিষ্টদের বিচার দাবি করেছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের আব্দুল মোতালেব মিলনায়তনে আয়োজিত এক প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাব সভাপতি মমতাজ আহমেদ বাপী। এসময় উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি সুভাষ চৌধুরী, সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, সাবেক সভাপতি অধ্যক্ষ আনিসুর রহিম, প্রথম আলোর কল্যাণ ব্যানার্জী, সাবেক সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ, সাবেক সভাপতি রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী, প্রেসক্লাব সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান, সাবেক সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ আশেক ই এলাহী, সাবেক সহ-সভাপতি কালিদাস রায়, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক মো: আলী সুজন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুল বারী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম কামরুজ্জামান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, দৈনিক করতোয়ার সেলিম রেজা মুকুল, দেশ টিভির শরীফুল্লাহ্ কায়সার সুমন, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির আবুল কাশেম, চ্যানেল ২৪ এর আমিনা বিলকিস ময়না, জিটিভির কামরুল হাসান ও মানসিক নির্যাতনের শিকার দৈনিক বনিক বার্তার গোলাম সরোয়ার প্রমুখ সাংবাদিক।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, র‌্যাব-৬ এর কোন কোন কর্মকর্তা অতি উৎসাহী হয়ে মামলা হয়নি এমন এক ঘটনায় কোর্ট চত্ত্বরের কাছ থেকেই মারামারিতে আহত নজরুল ইসলামকে ধরে নিয়ে নির্যাতন করেছে। একই সময় তাকে মোটরসাইকেলে বহনকারী সাংবাদিক গোলাম সরোয়ারকে টানাহেঁচড়া করে তার মোবাইল ও গাড়ির চাবি কেড়ে নিয়ে বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টা থেকে রাত ১১টা পর্যন্ত টানা ৭ ঘন্টা মানসিক নির্যাতন করেছে। র‌্যাবের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের সুস্পষ্ট দৃষ্টান্ত তুলে ধরে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, আইনশৃংখলা বাহিনীর একটি এলিট ফোর্স হিসেবে র‌্যাবের যে সুনাম রয়েছে তা এই সমস্ত অতি উৎসাহী কর্মকর্তাদের জন্য বিনষ্ট হচ্ছে।

সাংবাদিকদের ওপর কেন সাতক্ষীরার এই কর্মকর্তার এত রোষাণল তা নিয়ে রীতিমত প্রশ্ন তুলেছেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী হিসেবে র‌্যাব তার দায়িত্ব পালন করবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু দায়িত্ব বহির্ভূত কোন কর্মকান্ডের ব্যাপারে তাদের এ ধরনের ঘটনা সমর্থনযোগ্য নয়। সাংবাদিক নেতারা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা স্কোয়াড্রন লিডার ইশতিয়ার হোসাইনসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আন্দোলনের কর্মসূচী ঘোষণা করেছেন। এই কর্মসূচী অনুযায়ী কাল রোববার সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে সাংবাদিকদের মানববন্ধন এবং প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও তথ্যমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ করার ঘোষণা দেওয়া হয়।

এব্যাপারে সাংবাদিকরা র‌্যাবের সাথে যোগাযোগ করলে র‌্যাব-৬ স্কোয়াড্রন লিডার ইশতিয়ার হোসাইন বলেন, এই মামলার আরেক আসামীকে গ্রেপ্তার করার জন্য তাকে ডেকে নিয়ে গিয়েছিলাম। তাকে কোন অসম্মান করা হয়নি।



Comments are Closed

%d bloggers like this: